র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে নিহত ধর্ষক

গত ২৭ এপ্রিল ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে বাঁশখালীর উপজেলার বৈলছড়ি এলাকায় গণধর্ষণের শিকার হয় এক তরুণী। ভিকটিম তরুণীকে বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে আবদুল মজিদ, আবু তালেব ও অপর একজন মিলে ভিকটিমকে গণধর্ষণ করে। ভিকটিমের চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এলে ধর্ষকেরা পালিয়ে যায়। গণধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষিতার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়। মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেফতারে র্যাব-৭ তৎপর থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী থানার চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় ২নং আসামী আবু তালেব চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদস্থ জাম্বুরি পার্ক এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে অদ্য ১৪ জুলাই ২০২০ ইং তারিখ ০৫১০ ঘটিকায় র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী আবু তালেব (৪৫), পিতা- আহম্মদ জমির, গ্রাম- পশ্চিম চেচুরিয়া, থানা- বাঁশখালী, জেলা- চট্টগ্রাম’কে আটক করে। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত আসামীকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে বাঁশখালী থানার গণধর্ষণ মামলার ২নং পলাতক আসামী বলে স্বীকার করে (মামলা নং-৩৪, তারিখঃ ২৮-০৪-২০২০ ইং)। উল্লেখ্য যে, উক্ত মামলার ১নং আব্দুল মজিদ গত ১৫ জুন ২০২০ ইং তারিখে র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে নিহত হয়।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত