সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সতর্ক থাকুন, ধর্ম যার যার, উৎসব সবার : প্রবারণা পূর্ণিমায় তথ্যমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সতর্ক থাকুন, ধর্ম যার যার, উৎসব সবার -প্রবারণা পূর্ণিমায় তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০:

বাংলাদেশকে বিশ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য উদাহরণ হিসেবে বর্ণনা করে এই সম্প্রীতি বিনষ্টের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সকলকে সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

বৌদ্ধধর্মীয় উৎসব প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে সভা ও ফানুস উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। এসময় মন্ত্রী বৌদ্ধ ধর্মের সকলকে প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানান ও দেশবাসীর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।

আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত ধর্মমিত্র মহাথেরোর সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

মন্ত্রী বলেন, সাম্প্রদায়িক পাকিস্তান থেকে বেরিয়ে এসে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র হয়েছে। সেই লক্ষ্যেই আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি। সকল ধর্মের মানুষের মিলিত রক্তস্রোতের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে আমাদের স্বাধীনতা।

‘প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িকতা ও উন্নয়ন-সমৃদ্ধির প্রতীক এবং তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে আন্ত:ধর্ম সম্প্রীতির এক অনন্য দৃষ্টান্ত’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এর আগে কোনো বৌদ্ধ ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ছিলেন না, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই সেটি করেছেন, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে তার বিশেষ সহকারী ও দলের দপ্তর সম্পাদক -দুই পদেই রেখেছেন।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। কিন্তু দেশ-বিদেশ থেকে এখনো দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপচেষ্টা ও ষড়যন্ত্র চলছে। এ সম্পর্কে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।’

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া তার বক্তব্যে আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে প্রধানমন্ত্রীর ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে গত ২৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত বিশেষ প্রার্থনার কথা উল্লেখ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা যেভাবে সকল ধর্মের কল্যাণে কাজ করেছেন, তা এক বিরল দৃষ্টান্ত। আন্তঃধর্ম মৈত্রীর বন্ধন সকল সময় বজায় রাখতে হবে, বলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের নির্বাহী সভাপতি অশোক বড়ুয়া, বাংলাদেশের বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের সভাপতি ইঞ্জি: দিব্যেন্দু বিকাশ বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক সুনন্দপ্রিয় বড়ুয়া, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস-চেয়ারম্যান সুপ্তবসন বড়ুয়া, বাড্ডা ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাসুম গণি তাপস, বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ সভায় বক্তব্য রাখেন।

সভাশেষে ড. হাছান মাহমুদ অতিথিদের নিয়ে বিহার প্রাঙ্গণে প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে ফানুস ওড়ানোতে অংশ নেন।

বৌদ্ধমতে শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা তিথিতে মহান গৌতম বুদ্ধ দেবলোক হতে সাংকশ্য নগরে অবতরণ করেছিলেন। প্রবারণা শব্দের একাধিক অর্থের মধ্যে রয়েছে আশাপূরণ, ধ্যান বা শিক্ষা সমাপ্তি ও আত্মশুদ্ধি।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ