full screen background image

৭১’র দুর্ধর্ষ কিশোরী তারা মন বিবি বীর প্রতীক আর নেই

১৯৭১ সাল।চারদিকে ধ্বংসলীলায় লাশের গন্ধ।জীবন বাচাঁতে নারী ও শিশু যে যারমত পালিয়ে বেড়ানোর চেষ্টা।কেউ হয়েছে পাক হানাদার বাহিনী দ্বারা ধর্ষিতা কেউ বা জীবন দিয়েছে নিজের ইজ্জত বাচাঁতে।সব নারীরা যে পালিয়ে বেড়াবে তা নয়, তাদের মধ্যে কেউ থাকে অপ্রতিরোধ্য যারা সকল বাধা উপেক্ষা করে মুক্তি চিনিয়ে আনতে পারে। এমন এক যোদ্ধা ছিল তারামন বিবি বীর প্রতীক। 

 মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য রান্না করা, তাঁদের অস্ত্র লুকিয়ে রাখা, পাকিস্তানি বাহিনীর খবর সংগ্রহ করা এবং সম্মুখযুদ্ধে হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে লড়াই করেছিলেন তিনি। দুর্ধর্ষ সেই কিশোরীর অসীম সাহসিকতার জন্য বীর প্রতীক খেতাব দেওয়া হলেও আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁর হাতে তা তুলে দিতে ২২ বছর লেগে যায়। নিভৃতে জীবন যাপন করা এই সাহসী নারীকে খুঁজে পেতেই কেটে গিয়েছিল এতটা সময়। সেই বীর প্রতীক তারামন বিবি (৬২) আর নেই। চলে গেছেন লোকচক্ষুর অন্তরালে।

অনেক দিন ধরে শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে ভুগে গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কুড়িগ্রামের রাজিবপুর উপজেলা সদরে নিজ বাসায় মারা যান তারামন বিবি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ শনিবার বাদ জোহর জানাজা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *