full screen background image
Search
,
  • :
  • :
শিরোনাম

আসছে আলাদা প্রজাতির মানুষ

বিবর্তনের নিয়ম মেনে দুটো প্রজাতির ডিএনএর পরিবর্তন ঘটতে সময় লেগে গেছে ১.৫ থেকে ২ লাখ বছর। এবার আর অত সময় নেবে না। বেলজিয়ামের গ্লোবাল ব্রেইন ইন্সটিটিউটের গবেষক ক্যাডেল লাস্ট এমনই দাবি করেছেন। ২০৫০ সালের মধ্যেই নাকি আলাদা প্রজাতির মানুষের উদ্ভব ঘটতে পারে।

 

ক্যাডেল লাস্টের হিউম্যান এভ্যুলিউশন, লাইফ হিস্টোরি থিউরি, অ্যান্ড দ্য অ্যান্ড অব বায়োলজিক্যাল রিপ্রোডাকশন নামের ধারণাপত্রটি সম্প্রতি কারেন্ট এজিং সায়েন্স সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে।

 

গবেষক লাস্টের দাবি, বর্তমানে মানব প্রজাতি বিশাল বিবর্তনজনিত রূপান্তরের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। মাত্র চার দশকেরও কম সময়ে মানুষ আরও বেশিদিন বেঁচে থাকার সক্ষমতা অর্জন করবে, বুড়ো বয়সে সন্তান নিতে পারবে এবং নিজেদের কাজের সাহায্যের জন্য বুদ্ধিমান রোবট ব্যবহার করবে। এছাড়া মানুষ ওই সময় ভারচ্যুয়াল রিয়েলিটির জগতে অনেক সময় পার করবে।

 

এই পরিবর্তন এতটাই অর্থপূর্ণ হবে, যাকে বানর থেকে মানুষের বিবর্তন প্রক্রিয়ার সঙ্গে তুলনা করা চলে বলে গবেষক ক্যাডেলের দাবি। তিনি বলেন, আপনার দাদা-দাদির চেয়ে আপনার ৭০-৮০ বছর বয়সটার অনেক পার্থক্য দেখতে পাবেন। বিবর্তনবাদী অনেক গবেষক বলছেন, ২০৫০ সাল নাগাদ মানুষের আয়ু হবে ১২০ বছরের বেশি।

 

ব্যবসা ও প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট বিজনেস ইনসাইডারে ক্রিস্টিনা স্টারবেঞ্জের এক প্রতিবেদনে ক্যাডেল লাস্টের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ২০৫০ সাল নাগাদ মানুষের যৌন জীবনের পূর্ণতা আরও দীর্ঘায়িত হবে। মানুষ তাদের জীবনের ব্যাপ্তিকে ধীরে ধীরে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং দীর্ঘদিন বাঁচতে চাইবে।

 

১৪ সেপ্টেমবর/বাংলাআওয়াার/ঢাকা




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *