ধর্ম ব্যবসায়ীরা করোনাভাইরাসের চেয়েও ভয়ংকর: নাছিম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, এদেশের ধর্ম ব্যবসায়ী ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী অশক্তি যারা, তারা বাংলাদেশের মানুষের ভালো চায় না। এরা করোনাভাইরাসের চেয়েও ভয়ংকর। 

তিনি বলেন, ধর্ম ব্যবসায়ীদের হাত থেকে দেশ ও দেশের মানুষকে রক্ষা করার জন্য অপশক্তিকে রুখে দিতে হবে। 

সোমবার বগুড়ার শেরপুর উপজেলার বালেন্দা গ্রামে ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ প্রতিকৃতির ধান কাটা উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। 

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, এদেশের ধর্ম ব্যবসায়ী, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী অশক্তিকে আদর্শিক ও নৈতিক চিন্তা-চেতনার মধ্যে দিয়ে মোকাবিলা করা হবে। এ ধর্ম ব্যবসায়ীরাই অশুভশক্তি। এরাই মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতা করেছিল এবং ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল। এরাই সাম্প্রদায়িকতার মূলে থেকে দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করে ও তরুণ সমাজকে বিপদগ্রস্ত করছে। ধর্মকে কাজে লাগিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বাধাগ্রস্থ করছে।

তিনি বলেন, তারা কখনো বিএনপি, কখনো জামায়াত, কখনো শিবির আবার এখন হেফাজত ইসলামের নামে ফয়দা লুটার চেষ্টা করছে। ধর্মকে ব্যবহার করে এ হেফাজতিরা বিরাজনীতিকরণের মাধ্যমে রাজনৈতিক ফয়দা লুটার চেষ্টা করছে। হেফাজতে ইসলামের নামে যারা সরকারের বিরোধীতা করছেন, তারা মূলত জামাত-বিএনপির হেফাজতকারী। এরা ইসলামের হেফাজতকারী নয়। আমাদের লড়াই হচ্ছে এ অশক্তির বিরুদ্ধে। এ হেফাজতিরা তারেক রহমানের এজেন্ডা বাস্তবায়ন নিয়ে ব্যস্ত। এ অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। 

হেফাজতকে প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, এ প্রতিক্রিয়াশীল অশক্তির বিরুদ্ধে আমরা ঐক্যবদ্ধ আছি। এ ধর্মব্যবসায়ীদের হাত থেকে আমরা বাংলাদেশকে রক্ষা করবো। তারা যে নামেই আসুক না কেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিঘ্ন ঘটাতে দেব না। যেকোনো মূল্যে আমরা তাদের প্রতিহত করবো।

ধান কাটা উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, উদ্বোধন করেন ‘শষ্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ জাতীয় পরিষদের আহ্বায়ক ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, কৃষকলীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ। সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, সহ-সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *