মধ্যবিত্ত মানুষের কাছে টিসিবি’র ন্যায্যমূল্যের পণ্য পৌঁছে দিবে ই-কমার্স

টিসিবি সেবা সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্টানে বাণিজ্যমন্ত্রী
মধ্যবিত্ত মানুষের কাছে টিসিবি’র ন্যায্যমূল্যের
পণ্য পৌঁছে দিবে ই-কমার্স
ঢাকা ঃ ১৩ বৈশাখ (২৬ এপ্রিল,২০২১) ঃ
বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্শি, এমপি বলেছেন, দেশের মধ্যবিত্ত মানুষের ঘরে টিসিবি’র ন্যায্যমূল্যের পণ্য পৌঁছে দিবে ই-কমার্স। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ট্রেডিং করপোরেশন অফ বাংলাদেশ(টিসিবি) ট্রাক সেলের মাধ্যমে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ন্যায্যমূল্যে দেশব্যাপী বিক্রয় করছে। মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ যাতে এ সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হয়, সেজন্য সরকার ই-কমার্সের সহযোগিতায় ভোজ্য তেল, সোলা, চিনি এবং ডাল এ চারটি পণ্য বিক্রয়ের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। ২০০৯ সালে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ উপহার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে দেশ পরিচালনার দায়িত্বভার গ্রহণ করেছিলেন। আজ ডিজিটাল সুবিধা ভোগ করছে দেশের মানুষ। ই-কমার্স খুব কম সময়ের মধ্যে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত বছর প্রায় ১৬ হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য হয়েছে অন-লাইনে। সরকার ই-কমার্সকে সহযোগিতা করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। ই-কমার্সে নিয়োজিত জনবলকে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে সরকার প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। মানুষ যাতে প্রতারিত না হয় এবং ঘরে বসে ই-কমার্সের সুবিধা ভোগ করতে পারে। চলমান ই-বাণিজ্যে যে সকল ভুলক্রুটি ধরা পরছে, সেগুলো যাতে পুনঃরায় না ঘটে, সে বিষয়ে সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ই-কমার্সের জনপ্রিয়তা বাড়ছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী আজ (২৬ এপ্রিল) ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং ট্রেডিং করপোরেশন অফ বাংলাদেশ (টিসিবি) এর সহযোগিতায় ই-কমার্স এ্যাসোসিয়েশন(ই-ক্যাব) আয়োজিত “মাহে রমযানে ঘরে বসে স্বস্তির বাজার” কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, টিসিবি’র ন্যায্য মূল্যের পণ্য মধ্যবিত্তের ঘরে পৌছে দেয়ার জন্য ই-কমাসের সহযোগিতা নিয়েছে। বিগত দিনে পেঁয়াজ ও আম বিক্রয়ের ক্ষেত্রে দেশের মানুষ সুফল পেয়েছে। আশা করা যায়, মানুষ ই-কমার্সের প্রতি আস্থাশীল হবেন। যাতে সুশৃঙ্খল ভাবে ই-বাণিজ্য দেশে প্রসার লাভ করতে পারে। ই-কমার্সের কর্মীরা জীবনের ঝুকি নিয়ে ঘরে ঘরে পণ্য পৌছে দিচ্ছে। এটি একটি মহতি ও প্রশংসনীয় কাজ। এ বিপদের সময় মানুষ ঘরে বসে পণ্য ক্রয়ের সুযোগ পাচ্ছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে, আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি বঙ্গবন্ধুর স্বপেরœ সোনার বাংলা গড়ার জন্য। ডিজিটাল বাংলাদেশের সুবিধা মানুষের ঘরে ঘরে পৌছে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সেই সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।

উল্লেখ্য, ই-কমার্স এ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত (ই-ক্যাব) ডিজিটাল হাট ডট নেট এর ৮টি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ন্যায্য মূল্যে দেশের মধ্যবিত্ত মানুষের সুবিধার্থে অন-লাইনে টিসিবি’র পণ্য বিক্রয় করছে। আজ থেকে সপ্তাহব্যাপী অর্থাৎ আগামী ৬ মে পর্যন্ত ভোজ্য তেল, সোলা, চিনি এবং ডাল এ চারটি পণ্য বিক্রয় শুরু করেছে। ভোজ্য তেল প্রতিলিটার ১০৮ টাকা এবং চিনি, সোলা এবং ডাল ৫৮ টাকা দরে বিক্রয় করছে। একজন ক্রেতা সপ্তাাহে ৫ লিটার তেল এবং ৩ কেজি করে চিনি, সোলা, ডাল ক্রয়ের সুযোগ পাবেন। ডেলিভারি চার্জ সর্ব্বোচ্চ ঢাকা শহরে ৩০ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে ঢাকা, টাঙ্গাইল ও সিরাজগঞ্জ জেলায় এ সকল পণ্য বিক্রয় শুরু হয়েছে।

ই-কমার্স এ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট শমী কায়সারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন। সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বাণিজ্য মন্ত্রণারয়ের অতিরিক্ত সচিব, ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক মো. হাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত সচিব (আমদানি ও অভ্যন্তরিন বাণিজ্য) এএইচএম শফিকুজ্জামান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন টিসিবি’র পরিচালক(যুগ্ম সচিব) মইন উদ্দিন আহমেদ, ই-কমার্স এ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক জিয়া আশরাফ, স্বপ্ন অন-লাইনের পরিচালক শাহেদুল ইসলাম, চালডাল ডট কম এর পরিচালক ইশরাত জাহান নাবিলা এবং ই-কমার্স এ্যাসোসিয়েশন এর সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল ওয়াহেদ তমাল।