নগদ নিয়ে এতো ক্যাচাল !!

ভেবেছিলাম নগদ নিয়ে বুঝি সবাই ফাজলামি করছে কিন্তু নগদ যে আমাদের সাথে ফাজলামি করছে সেটা গতকাল শেলীর (আমার ওয়াইফ) নগদ একাউন্ট এর ব্যালেন্স চেক করতে গিয়ে বুঝলাম।

শেলীর নগদ একাউন্টটা ওপেন করা হয় মুলত আমার ছোট ছেলের উপবৃত্তির টাকা আসবে সে কারণে এবং জুলাই মাসে উপবৃত্তির ৪৫০ টাকাও আসে এবং আমি তখন চেক করেছিলাম টাকা ব্যালেন্স আছে। ৪৫০টাকা আর উঠানো হয়নি একাউন্টই ছিলো।

নগদ নগদ নিয়ে এতো ক্যাচাল দেখে গতকাল যখন ব্যালেন্স চেক করার জন্য *১৬৭# দিয়ে কল বাটনে চাপ দেই; দেখি নতুন পিন নাম্বার সেট করতে বলছে; তখনই বুঝেছি “ডাল মে কুচ কালা হ্যায়”। সত্যি সত্যিই কালা হয়ে গেলো আমার মুখ যখন ব্যালেন্স চেক করতে গিয়ে দেখি ব্যালেন্স “জিরো”

সাথে সাথেই নগদে ফোন দিলাম জিজ্ঞাসা করলাম কারণ কি? উনারা আমাকে আমার স্টেটমেন্ট চেক করতে বলেন। আমি যতই বলি আমার স্টেটম্যান চেক করার কিছু নেই কেননা আমার ট্রানজেকশন মাত্র একটাই হয়েছে; তখন শেষমেশ কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজার একটু রূহ স্বরেই বললেন আগে চেক করেন তারপর ফোন দেন। কথা না বাড়িয়ে ফোনটা রেখেই দিলাম।

চেক করতে বলেছে তাই চেক করে দেখিই না কি আছে; দেখলাম! আগস্ট মাসে ৪৫০টাকা ক্যাশ আউট দেখাচ্ছে স্টেটম্যান্টে অথচ ক্যাশ আউট করিনি আমি বা শেলী কেউই। সত্য বলতে শেলী জানেও না কিভাবে নগদ ওপেন করতে হয় এবং পিন নাম্বার কত ছিলো আর আমি ক্যাশ আউট করতে হলে ওর ফোন নিয়ে আমাকে যেতে হবে দোকানে; আমি ওর ফোন নিয়ে কখনো বাইরে যাইনি। শেলীর বিকাশ থেকে যদি আমার কখনো টাকা উঠানোর প্রয়োজন পড়লে সেটা আমি আমার ফোনে সেন্ড মানি করে তবেই উঠাই। নগদেও যদি ভুলে করে থাকতাম সেটা আমার নগদে সেন্ড করেই করতাম, সেটা ক্যাশ আউট হতো না।

শেলি যেহেতু প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক তাই ওর কাছে কিছুদিন ধরেই এমন অনেক অভিযোগ এসেছে নগদের টাকা নাই; ও ভেবেছে গ্রামের মানুষ হয়ত নগদের দোকানদার উঠিয়ে নিয়েছে বা কিভাবে নগদ থেকে ব্যালেন্স চেক করতে হবে বুঝতেছে না তাই তেমন গুরুত্ব দেয়নি। বাংলাদেশের প্রতিটি “উপবৃত্তি”র টাকা নগদের মাধ্যমে আছে; এমন অনেকে আছে যারা টাকা তুলেও নাই কিংবা বুঝেও না টাকা কিভাবে উঠাতে হয় বা ভাবে পরে একসাথে উঠাবে। সে টাকাগুলোও যদি লোপাট করে দেয় নগদ তাহলে সেটা কত হতে পারে ভাবাই যায় না!!!

আসলে দেশে হচ্ছে টা কি? একটা ফাইনান্সিয়াল কোম্পানি দীর্ঘদিন ধরে মার্কেটে ব্যবসা করছে আর তখন যদি বাংলাদেশ ব্যাংক বলে আমরা নগদকে অনুমোদন দেইনি তখন এই দায় কার!

আমিনুর রহমান জেসন ভাইর ফেইসবুক থেকে…..

https://www.facebook.com/algolbd

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *