ঢাকা, ১৩ জুলাই ২০২৪, শনিবার, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
banglahour গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন প্রাপ্ত নিউজ পোর্টাল

যার জীবন নাটকের চেয়েও নাটকীয়

বিনোদন | হামিদ হাসান

(১ বছর আগে) ২ মে ২০২৩, মঙ্গলবার, ৬:৪৮ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৬:৪৯ পূর্বাহ্ন

banglahour

ঢাকা: সৌন্দর্যকে কোন মাপকাঠি দিয়ে মাপা যায় না, কিন্তু আজ যার সম্পর্কে কথা বলবো  সৌন্দর্য তার স্নিগ্ধতায়, তার ব্যক্তিত্বে।তার হাসি, তার কথা, তার চাহনি, তার নাচ, তার কপট রাগ সবকিছু মিলিয়ে যেকোনো অমাবস্যার রাতে জোছনা নামাতে পারে। বলছি জনপ্রিয় বাংলা অভিনেত্রী অপি করিমের কথা।

বাংলা নাটক জগতে অপি করিম মানেই অনেক কিছু। অপি করিমের পর শোবীজ জগতে অনেকেই নাম এসেছে এরপরও কেন জানি সবার আগে থাকে এই নামটি, যিনি বাংলা নাটকে অভিনয় করে বাংলাদেশের নাট্যজগতকে করেছে সমৃদ্ধ ও নিজে হয়েছেন বিখ্যাত। আজ এই বিখ্যাত অভিনেত্রী জন্মদিন।

পরিবার:
পুরো নাম সৈয়দা তুহিন আরা অপি করিম। তিনি ১৯৭৯ সালের ১ মে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তবে পৈতৃক নিবাস ফরিদপুরে। তার পিতা সৈয়দ আবদুল করিম একজন কবি ও লেখক এবং মা শাহান আরা করিম।

অপি করিম ১৯৯৯ সালে লাক্স ফটোজেনিক প্রতিযোগিতায় 'মিস ফটোজেনিক' খেতাব অর্জন করেন। 
তিনি বাংলা টেলিভিশন নাটকে এবং বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।
নাটক, টেলিফিল্ম, উপস্থাপনা, সিনেমা, মঞ্চ, বিজ্ঞাপন, নাচ আবার পড়াশোনা- সব ক্ষেত্রেই তার দ্যুতি ছড়ানো প্রতিভা। 
এছাড়া তিনি আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর আর্কিটেকচারের একজন ফ্যাকাল্টি মেম্বার।

পড়াশোনায় তিনি অনেক ভাল ছিলেন। প্রায় সবসময় ক্লাসে ফার্স্ট হতেন। ছোট থেকেই স্বপ্ন ছিলেন বাড়ি বানাবেন। কৃতিত্বের সাথে বুয়েট থেকে স্থাপত্যবিদ্যায় পড়াশোনার পাঠ চুকিয়ে উচ্চ শিক্ষার জন্য তিনি পাড়ি জমালেন জার্মানিতে।

টানা ৪ বছর জার্মানি থেকে উচ্চতর ডিগ্রী শেষ করে  স্থায়ীভাবে বাংলাদেশে বসবাস শুরু করেন এবং নিয়মিত অভিনয় করেন রেদয়ান রনি'র পরিচালনায় মেগা সিরিয়াল 'হাউসফুল' এ।
এছাড়া  শুকতারা, আপনজন, সবুজগ্রাম, তিথির সুখ এ নাটকগুলোতে অভিনয় করেন এই ম্যাল্টি ট্যালেন্টেড অভিনেত্রী। 
২০১৩ সালে অভিনয় কমিয়ে দেন তিনি। তবে কলকাতার বিজ্ঞাপন নির্মাতা সৌনকের পরিচালনায় কোহিনূর ক্যামিক্যাল বাংলাদেশের "তিব্বত ডিটারজেন্ট পাউডার" এর বিজ্ঞাপনে অংশ নেয়।

অভিনয়ের উপস্থাপনাতেও  সুনাম কুড়িয়েছেন তিনি। সর্বপ্রথম জীবনযাত্রা নামক অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেছিলেন।  আমাদের জাদুকর'  সোনালী প্রান্তর অনুষ্ঠান তার  উপস্থাপনায় নতুন প্রাণ লাভ করে।
এছাড়াও উপস্থাপিকার ভুমিকায় কাজ করেছেন চ্যানেল নাইনের "অপি'স গ্লোয়িং চেয়ার" অনুষ্ঠানের প্রথম ও দ্বিতীয় মৌসুমের।

২০১৫ সালে সাগর জাহান রচিত ঈদের নাটক এ শহর মাধবীলতার না এর একটি গানের জন্য কণ্ঠ দেন অপি। ‘ধুলোপড়া সময়’ শিরোনামের এই গানটির সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন মুন্তাসির তুষার।এছাড়াও শুভেচ্ছা দূত হয়েছেন পেপসিকোর ব্র্যান্ডের কুড়কুড়ে স্ন্যাকসের।

তার অভিনিত উল্লেখযোগ্য ও দর্শকপ্রিয় নাটক হল যে জীবন ফড়িং, ছায়াফেরী, থতমত এই শহরে, মান অভিমান, কেমন আছো, এ শহর মাধবীলতার নয়, মন্থন, হঠাৎ প্রিয়তমা, অবাক ভালবাসা।

সর্বশেষ তিনি ২ বাংলায় আলোচিত কলকাতায় নির্মিত মায়ার জঞ্জাল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। যার প্রধান ২ টি চরিত্র ছিল পশ্চিম বাংলার ঋত্বিক চক্রবর্তী ও পরাণ বন্দোপাধ্যায়।

অপি করিমের কর্মজীবন খুব বৈচিত্র্যময়। তিনি কখনো নিজেকে কর্মজীবনের মাঝে সীমাবদ্ধ রাখেননি। টেলিভিশনে তিনি নৃত্যশিল্পী হিসেবেও মন জুগিয়েছেন লাখো দর্শকের।

তিনি ২০০৩, ২০০৫ ও ২০০৭ সালে মেরিল প্রথম আলো পুরষ্কার এবং ২০০৪ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার  লাভ করেন।

বৈবাহিক জীবন:
নাটকের মত তার ব্যক্তিগতজীবনও কম নাটকীয় নয়। ২০০৫ সাল থেকে প্রেম করার পর ২০০৭ সালে বিয়ে করেন আশির আহমেদ নামক একজন ব্যবসায়ীকে। পরবর্তীতে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় তাদের।

২০১১ সালে নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বলকে বিয়ে করেন তিনি। এবারও তার সংসার বেশিদিন টিকলনা, হয়ত আবারও ভুল মানুষকে বেছে নিয়েছিলেন তিনি।

সর্বশেষ ২০১৬ সালে তিনি নির্মাতা এনামুল করিম নির্ঝরকে বিয়ে করেন। যা বর্তমানেও টিকে আছে।

২০২০ সালে  অপি করিম এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। তার কন্যা সন্তানের নাম রশ্মি রুয়াইদা।

banglahour
banglahour
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন প্রাপ্ত নিউজ পোর্টাল
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ হোসনে আরা বেগম
নির্বাহী সম্পাদকঃ মাহমুদ সোহেল
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম
ফোন: +৮৮ ০১৭ ১২৭৯ ৮৪৪৯
অফিস: ৩৯২, ডি আই টি রোড (বাংলাদেশ টেলিভিশনের বিপরীতে),পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা-১২১৯।
যোগাযোগ:+৮৮ ০১৯ ১৫৩৬ ৬৮৬৫
contact@banglahour.com
অফিসিয়াল মেইলঃ banglahour@gmail.com