অর্ধ-শতাধিক মডেলের ফ্রিজ রয়েছে নগদ ১০ লাখ টাকাসহ কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার

ঈদুল আযহা, কোরবানির ঈদ। বাংলাদেশে এই সময়টা ফ্রিজ বিক্রির প্রধান মৌসুম। তাই ঈদের আগে সারা দেশে চলছে ফ্রিজ বিক্রির ধূম। তবে এই ঈদে ক্রেতা আকর্ষণের কেন্দ্রে রয়েছে দেশের সুপারব্র্যান্ড ওয়ালটনের আপডেট ফিচারের নতুন অর্ধ-শতাধিক মডেলের ফ্রিজ। আবার ফ্রিজ ক্রয়ে ক্রেতাদের মিলিয়নিয়ার হওয়ার সুযোগসহ কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার দিচ্ছে বাংলাদেশী ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন।


জানা গেছে, ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে ২৭টি নতুন মডেলসহ আপডেট ডিজাইন ও ফিচারের ফ্রিজ বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। নিজস্ব কারখানায় তৈরি এসব ফ্রিজের মধ্যে রয়েছে আইওটি বেজড স্মার্ট রেফ্রিজারেটর, বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ডিজিটাল ইনভার্টার প্রযুক্তি এবং ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী সুপার কুলিং ফিচারের ফ্রিজ।


সবমিলিয়ে বর্তমানে বাজারে রয়েছে ওয়ালটনের প্রায় দুইশত মডেলের রেফ্রিজারেটর, ফ্রিজার ও বেভারেজ কুলার। নতুন মডেলের ওয়ালটনের এসব ফ্রিজের ধারণক্ষমতা ১২৫ লিটার থেকে ৩৬৫ লিটারের মধ্যে। এদিকে বিক্রয়োত্তর সেবা অনলাইন অটোমেশনের আওতায় আনতে সারা দেশে ‘ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ১১’ চালাচ্ছে ওয়ালটন। কোরবানি ঈদ উপলক্ষ্যে এই ক্যাম্পেইনের এই সিজনে ওয়ালটন ফ্রিজে চলছে ‘মেগা ঈদ ফেস্টিভ্যাল’। এর আওতায় ওয়ালটনের যেকোনো মডেলের ফ্রিজ কিনলে মিলিয়নিয়ার বা নগদ ১০ লাখ টাকা পাওয়ার সুযোগ। এছাড়া আছে কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। এরইমধ্যে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নার হয়েছেন সাত জন ক্রেতা। নিশ্চিত ছাড়ের আওতায় আকর্ষণীয় অঙ্কের ছাড় পেয়েছেন অসংখ্য ক্রেতা।
এসব সুবিধার পাশাপাশি ওয়ালটন ফ্রিজে রয়েছে ১ বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছরের গ্যারান্টি সুবিধা। এছাড়া ঈদে ঘরে বসে ফোন করলেই কাছাকাছি ওয়ালটন প্লাজা অথবা ডিস্ট্রিবিউটর শোরুম বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওয়ালটনের দক্ষ কর্মকর্তাগণ গ্রাহকের ঘরে ফ্রিজে পৌঁছে দিচ্ছেন। এক্ষেত্রে রয়েছে ক্যাশ অন ডেলিভারি ও ফ্রি হোম ডেলিভারি সার্ভিসের সুবিধা। আবার অনলাইনে ই-প্লাজা থেকে ৫ শতাংশ ডিসকাউন্টসহ জিরো ইন্টারেস্টে ১২ মাসের ইএমআই সুবিধায় ওয়ালটন ফ্রিজ ক্রয়ের সুযোগ পাচ্ছেন ক্রেতারা।
সূত্রমতে, এই ঈদে ফ্রিজ ক্রেতাদের জন্য এক্সচেঞ্জ অফার চালু করেছে ওয়ালটন। এর আওতায় গ্রাহকের যেকোনো ব্র্যান্ডের সচল বা অচল পুরাতন ফ্রিজের বদলে আকর্ষণীয় ডিসকাউন্টে ওয়ালটনের যেকোনো মডেলের ডিপ ফ্রিজ কেনার সুযোগ রয়েছে।


ওয়ালটনের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এমদাদুল হক সরকার বলেন, দেশের বাজারে ওয়ালটন ফ্রিজের এখন একচেটিয়া আধিপত্য। ক্রেতাদের কাছে এখন ফ্রিজ মানেই ওয়ালটন। বর্তমানে বেশি চলছে ওয়ালটনের সম্পূর্ণ নতুন এবং আপডেট ডিজাইন ও ফিচারের অর্ধ-শতাধিক নতুন মডেলের ফ্রিজ।


ওয়ালটন ফ্রিজের চিফ অব বিজনেস আনিসুর রহমান মল্লিক জানান, বর্তমান পরিস্থিতি ও ক্রেতাদের প্রয়োজনীয়তার কথা বিবেচনা করে ঈদে ওয়ালটন সর্বাধুনিক ফিচারের নতুন মডেলের ফ্রিজ বাজারে এনেছে। ফ্রিজেরউল্লেখযোগ্য ফিচারের মধ্যে রয়েছে- হাই এনার্জি এফিসিয়েন্ট,এলিগেন্ট ডোর প্যাটার্ন, স্ট্যাবিলাইজার ফ্রি অপারেশন, বিগার ফ্রিজার ক্যাপাসিটি, ইউজার ফ্রেন্ডলি আরগনোমিক এন্ড এলিগেন্ট ডোর ডিজাইন, দীর্ঘ কুলি


সুবিধা, র‌্যাট প্রিভেন্টিভ কম্প্রেসর ব্যাক কাভার, লো নয়েজ লেভেল, ৫ স্টার এনার্জি রেটিং, আল্ট্রাফ্রেশনেস, সুপার কুলিং, আইসিএস বা ইন্টালিজেন্ট কন্ট্রোল সিস্টেম, স্মার্ট ডায়াগনোসি, আইজিটি আয়োনাইজার ও ইলেকট্রনিক্স কন্ট্রোল ইত্যাদি। এছাড়াও ওয়ালটন ফ্রিজে সংযোজন করা হয়েছে আইওটি বেজড স্মার্ট প্রযুক্তি।
ঈদ বাজারে ওয়ালটনের রয়েছে দুই শতাধিক মডেলের ফ্রস্ট, নন-ফ্রস্ট ও ডিপ ফ্রিজ। ওয়ালটনের এসব ফ্রিজ পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ১০,৯৯০ টাকা থেকে ৬৯,৯০০ টাকার মধ্যে। নগদ মূল্যের পাশাপাশি বিশ্বমানের ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার সুযোগ আছে।

আন্তর্জাতিক মান যাচাইকারি সংস্থা নাসদাত ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব থেকে মান নিশ্চিত হয়ে ওয়ালটনের প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে ছাড়া হচ্ছে। ওয়ালটন ফ্রিজের রয়েছে বিএসটিআইয়ের ফাইভ স্টার এনার্জি এফিশিয়েন্সি রেটিং। ফ্রিজ উৎপাদন ও রপ্তানিতে ওয়ালটন অর্জন করেছে আইএসও, ওএইচএসএএস, ইএমসি, সিবি, আরওএইচএস, এসএএসও, ইএসএমএ, ইসিএইচএ, জি-মার্ক, ই-মার্ক ইত্যাদি সার্টিফিকেট। আন্তর্জাতিকমানের ওয়ালটন ফ্রিজ রপ্তানি হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।

আইএসও সনদপ্রাপ্ত ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ক্রেতাদের দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে পৌঁছে দিচ্ছে। এর আওতায় সারা দেশে রয়েছে ওয়ালটনের ৭৬টি সার্ভিস সেন্টার। যেখানে নিয়োজিত রয়েছে আড়াই হাজারেরও বেশি সার্ভিস এক্সপার্টস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *