banglahour

মেরিন ড্রাইভে ভাঙ্গন এখনো নিয়ন্ত্রনে আসনে, উদ্বিগ্ন স্থানীয়-র্পযটক

অনুসন্ধান | নিজস্ব প্রতিবেদক

(১০ মাস আগে) ৭ আগস্ট ২০২৩, সোমবার, ৯:৩২ পূর্বাহ্ন

 

র্পযটকদের অন্যতম আর্কষণীয় কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইনে ভাঙ্গন এখনো নিয়ন্ত্রেনে আসেনি। গত ৩ দিন ধরে সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ ও র্পূর্ণিমার জোয়ারের প্রভাবে তীব্র ঢেউয়ের আঘাতে সড়কটির অন্তত ১০ থকেে ১৫ টি স্থানে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। তবে জোয়ারের পানি কমতে শুরু করায় নতুন করে কোথাও ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়নি। প্রতি বছর অব্যাহত ভাঙ্গনের ফলে লোকালয়ে সাগরের পানি প্রবেশের আশংকার পাশাপাশি ভ্রমণে সমস্যা হওয়ায় উদ্বিগ্ন স্থানীয় ও র্পযটকরা। এদিকে সংশ্লষ্টিরা বলছেন, বালুভর্তি জিওব্যাগ দিয়ে ভাঙ্গন প্রতিরোধের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ভাঙ্গনে পানির উচ্চতা না কমা র্পযন্ত পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব নয়।

একপাশে সমুদ্র অন্যপাশে পাহাড়। প্রকৃতির নয়নাভিরাম অপার সৌর্ন্দর্যের মেলাবন্ধন র্দীঘ ৮০ কিলোমিটার কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ। ভ্রমনে আসা যে কারও মনে কেড়ে নেয় এই সৌন্দর্য। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ ও র্পূর্ণিমার প্রভাবে জোয়ারের কারণে তীব্র ঢেউয়ের আঘাতে সড়কটির অন্তত ১০ থকেে ১৫ টি স্থানে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।টেকনাফ  উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের বাহারছড়া ঘাট থেকে হাদুরছড়া বিজিবি ক্যাম্প শ্মশান র্পযন্ত ৪ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে সড়কটিতে এসব ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে। এতে মেরিন ড্রাইভের চোখ জুড়ানো সৌর্ন্দয্য বিনষ্ট হওয়ার পাশাপাশি লোকালয়ে পানি প্রবেশ হুমকির মধ্যে রয়েছে  দুই শতাধিক পরিবার।

ভ্রমন পিপাসুদের আর্কষণীয় এই মেরিন ড্রাইভ সড়কে ভাঙ্গন এভাবে অব্যাহত থাকলে যে কোন মুর্হুতে এটি বিলীন হয়ে লোকালয়ে জোয়ারের পানি প্রবশে করবে।তাই এই সড়ক রক্ষার পাশাপাশি  দ্রুত   সংস্কাররে দাবি জানান স্থানীয় ও র্পযটক।

উপদেষ্টা সম্পাদকঃ হোসনে আরা বেগম
নির্বাহী সম্পাদকঃ মাহমুদ সোহেল
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম
ফোন: +৮৮ ০১৭ ১২৭৯ ৮৪৪৯
অফিস: ৩৯২, ডি আই টি রোড (বাংলাদেশ টেলিভিশনের বিপরীতে),পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা-১২১৯।
যোগাযোগ:+৮৮ ০১৯ ১৫৩৬ ৬৮৬৫
contact@banglahour.com
অফিসিয়াল মেইলঃ banglahour@gmail.com
banglahour
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন প্রাপ্ত নিউজ পোর্টাল